স্কাল্পারদের জন্য কিছু দরকারী টিপস

FBS VPS

ফরেক্স ট্রেডারদের মধ্যে কয়েকশ্রেণীর ট্রেডার আছে।

১. স্কাল্পার  – দ্রুত ট্রেড নেয় দ্রুত প্রফিট নিয়ে এক্সিট করে  ১০-২০ পিপস পেলেই সন্তুষ্ট।
২. লংটার্ম ট্রেডার – মার্কেট এনালাইসিস করে পজিশন নেয়। সুইং পয়েন্ট অথবা প্রাইচ একশন দেখে ২০০-৫০০-১০০০ পিপস পর্যন্ত প্রফিট করে
৩. নিউজ ট্রেডার- তারা মুলত হাই ইমপেক্ট নিউজের সময়ই ট্রেড করে থাকে। এবং নিউজ অনুকুলে থাকলে প্রচুর প্রফিট করে থাকে
স্কাল্পিং ফরেক্স এর সবচেয়ে বিপদজনক স্ট্রাটেজি নিউ কামারদের জন্য। ধুমপান স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর জেনেও অনেকে যেমন ধুমপাণ করে। অনেক সিনিয়র ট্রেডার যাদের আমরা অনুকরণীয় মনে করি চুপি চুপি না দেখিয়ে তারাও স্কাল্পিং করে। কারণ স্কাল্পিং এ দ্রুত প্রফিট আসে।  তেমনি আবার দ্রুত একাউন্টও জিরো হয়। তারপরো এক্সপার্টরা কিছু জিনিস মেনে চলেন বলে তারা হয়তো লসের মুখ তেমন দেখেননা। আমার অভিজ্ঞতা থেকে কিছু পয়েন্ট শেয়ার করলাম স্কাল্পিং যারা করেন তারা এগুলা মেনে চললে আশা করি ভাল করবেন।
১. স্টপলস টিপি ছাড়া স্কাল্পিং না। লট সাইজ সহনীয় থাকতে হবে।
২. হায়ার টাইমফ্রেম দেখে পজিশন বুঝে শুধু বাই বা সেল এ থাকতে হবে। একবার বাই, একবার সেল দেয়ার চেয়ে ওভারবাউট থেকে সেল আর ওভারসোলড থেকে বাই দেয়া নিরাপদ। RSI ব্যবহার করে সেটা বুঝতে পারবেন।

৩. শুক্রবারে কোন স্কাল্পিং চলবেনা, বরং ট্রেড মুক্ত থেকে ইবাদত বন্দেগীতে শুক্রবারটা কাজে লাগালেই ভাল। আল্লাহর রহমত ছাড়া কোন কিছুই সম্ভবনা। অন্য ধর্মাবলম্বীরা তাদের ধর্মকর্মে মন দিন এই দিনে। তাহলে ট্রেড এর ভুত মাথায় থাকবেনা। শুক্রবারে স্কাল্পিং তারাই করতে পারবে যারা স্টপলস এবং টিপি দিয়ে ট্রেড করে। কারণ শুক্রবারে মার্কেট আন এক্সেপ্টেড মুভমেন্ট হয় বেশিরভাগ সময়।
৪. হাই ইমপেক্ট নিউজের ২ ঘন্টা আগে পরে কোন স্কাল্পিং না।
৫. অন্য স্ট্রাটেজিতে আমি ১:২ রিস্ক রিওয়ার্ড মানলেও স্কাল্পিং এ ২:১ ফলো করি যখন আমি শিউর হই যে মার্কেট এ আমি এখন এন্ট্রি নিতে পারব। অর্থাত সুইং ট্রেড এ আমি যদি ১০০ পিপ স্টপলস ২০০ পিপ টিপি দেই, সেক্ষেত্রে স্কাল্পিং এ ২০ পিপ স্টপলস আর ১০ পিপ টিপি দেই। অবশ্য সেক্ষেত্রে রিস্ক হবে একাউন্টের .৫০% ২টা ট্রেডে ১% লস হলে সেদিনের জন্য ট্রেড অফ। আড্ডা মারতে চলে যান। পরদিন আবার চেষ্টা করুন।
৫. রেঞ্জি মার্কেট স্কাল্পিং এর জন্য নিরাপদ। বিশেষ করে কোন নিউজ ইমপ্যাক্টে মার্কেট যখন ১৫০-২০০ পিপ পড়ে যাবে তখন শুধু বাই এ থাকি রিট্রেসমেন্ট নেয়ার জন্য এবং সেটা নিউজের অনেক পরে একটা পর্যায়ে মার্কেট যখন সাইডওয়েতে থাকে। সেক্ষেত্র স্টপলস হবে ওইদিনের লো থেকে ২০ পিপ নিচে। আর আপ হলে সেল এ থাকব সেম কন্ডিশনে।
৭. হায়ার টাইম ফ্রেম থেকে ডিরেকশন নিতে হবে। সেক্ষেত্রে RSI আপনাকে সহায়তা করবে।

৮. স্কাল্পিং এর সময় ট্রেন্ডলাইন একে মার্কেট আপট্রেন্ড না ডাউনট্রেন্ড সেটা বের করবেন। আপট্রেন্ডে সাপোর্ট থেকে ডাউন ট্রেন্ডে রেজিস্টান্স থেকে এন্ট্রি নেয়ার চেষ্টা করবেন।
৯. কখনো ভোলাটাইল সময় মার্কেটের বিপরীতে গিয়ে রিট্রেসের আশা করে ট্রেড দিবেননা। বরং মার্কেটে একটা নিউজ এর এফেক্ট শেষ হয়ে গেল যখন সাইডওয়েতে চলে যাবে তখন স্কাল্পিং করবেন।
১০. সবচেয়ে বড় কথা মানি ম্যানেজমেন্ট মানতে হবে। না হয় ৯ ট্রেডে প্রফিট করে ১০ নং ট্রেডে একাউন্টটা জিরো করে ফেলবেন।

Related Posts